News

চাল আমদানি নিরুৎসাহিত করতে শুল্কের পরিমাণ বৃদ্ধি

May 25, 2019

বাইরে থেকে চাল আমদানি নিরুৎসাহিত করতে বাংলাদেশে আমদানিকৃত চালের উপর শুল্কের পরিমাণ বৃদ্ধি করা হয়েছে। নিয়ন্ত্রণমূলক শুল্কের পরিমান আগে ৩ শতাংশ থাকলেও বর্তমানে তা ২৫ শতাংশে উন্নীত করা হয়েছে। এছাড়া আমদানি পর্যায়ে চালের উপর ৫ শতাংশ অগ্রীম কর আরোপ করা হয়েছে এবং আমদানি শুল্ক ২৫ শতাংশ পর্যন্ত বহাল রাখা হয়েছে। 

আজ ২২ মে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) এই সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করেছে।  নতুন শুল্ক-কর আরোপের ফলে চাল আমদানির মোট কর ভার হলো ৫৫ শতাংশ। এই বাড়তি শুল্ক-কর বুধবার থেকেই তাৎক্ষণিকভাবে কার্যকর করা হয়েছে। 

এ দিকে এনবিআরের পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে সংস্থাটির চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া বলেন, চলতি ২০১৮-১৯ অর্থবছরের দশ মাসে প্রায় ৩ লাখ ৩ হাজার টন চাল আমদানি করা হয়েছে। এতে দেশীয় কৃষকেরা উৎপাদন খরচের কম মূল্যে চাল বিক্রি করতে বাধ্য হচ্ছেন। যার  ফলে প্রান্তিক কৃষকেরা আর্থিকভাবে বিপুল ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন। কৃষকদের এই ক্ষতি থেকে রক্ষা করতে প্রধানমন্ত্রীর অনুশাসন অনুযায়ী চাল আমদানি পর্যায়ে শুল্ক-কর বৃদ্ধি করা হয়েছে। তিনি এর ফলে কৃষকদের আর্থিক ক্ষতি কিছুটা হলেও কম হবে বলে আশা ব্যক্ত করেছেন। 

সরকার গৃহীত এই সিদ্ধান্ত কে সব মহল সাধুবাদ জানিয়েছে। কৃষক বাঁচলে বাঁচবে দেশ। কৃষকদের সহায়তা করার জন্য সোশ্যাল মিডিয়া গুলোতেও নেটিজেনরা বেশ তৎপরতা দেখিয়েছে।