তুরস্কে এরদোয়ানকে হারাতে লড়ছে বিরোধী দলগুলোর জোট

তুরস্কে আজ রবিবার প্রেসিডেন্ট ও পার্লামেন্ট নির্বাচনের ভোটগ্রহণ চলছে। দেশটির প্রবল ক্ষমতাধর প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়িপ এরদোয়ানের জন্য এই নির্বাচন হতে যাচ্ছে তার রাজনৈতিক জীবনের সবচেয়ে বড় লড়াই। কারণ এবার তাকে মোকাবেলা করতে একজোট হয়েছে সবগুলো বিরোধী দল।

এরদোয়ানের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী কামাল কিলিচদারগলু শুক্রবার তার সমর্থকদের যে সমাবেশটিতে হাজির হয়েছিলেন, তাতে তার দুই পাশে ছিলেন অনেকগুলো রাজনৈতিক দল থেকে আসা মিত্ররা। তুরস্কের রাজনীতিতে অনেক দিন এমনটা ঘটেনি। আংকারায় তখন আকাশ ভেঙে বৃষ্টি নেমেছে। তার মধ্যেই সেই সমাবেশে কিলিচদারগলু ঘোষণা করলেন, তিনি দেশে ‘শান্তি ও গণতন্ত্র’ পুনঃপ্রতিষ্ঠা করবেন।

অন্যদিকে যাকে ক্ষমতাচ্যুত করার জন্য তিনি ভোটারদের আহ্বান জানাচ্ছেন, ২০ বছর ধরে ক্ষমতায় থাকা সেই এরদোয়ান বলছেন, বহু চ্যালেঞ্জ সত্ত্বেও তুরস্কের মাথা উঁচু রেখেছেন তিনি।

চ্যালেঞ্জগুলোর একটি ছিল অর্থনীতি, যার ওপর দিয়ে দুই অঙ্কের মুদ্রাস্ফীতি এবং ফেব্রুয়ারির ভয়াবহ ভূমিকম্পের মতো বহু ঝড়-ঝাপটা বয়ে গেছে। তুরস্কের এবারের প্রেসিডেন্ট ও পার্লামেন্ট নির্বাচনের সময় এ দুটিই ছিল প্রধান ইস্যু।

কামাল কিলিচদারগলুর বয়স এখন ৭৪ এবং তাকে একজন মৃদুভাষী লোক হিসেবেই মনে করা হয়। কিন্তু শুক্রবারের সমাবেশে তিনি এক জোরালো বক্তৃতা দিয়েছেন আগত জনতার উদ্দেশে। তার সমর্থকরা মনে করছেন, গত দুই দশক ধরে এরদোয়ান পার্লামেন্টের পরিবর্তে নিজের হাতে ক্ষমতা কুক্ষিগত করেছেন এবং সেই ক্ষমতা কেড়ে নেওয়ার জন্য এবারই সবচেয়ে বড় সুযোগ উপস্থিত।

কামাল কিলিচদারগলুর বয়স এখন ৭৪ এবং তাকে একজন মৃদুভাষী লোক হিসেবেই মনে করা হয়। কিন্তু শুক্রবারের সমাবেশে তিনি এক জোরালো বক্তৃতা দিয়েছেন আগত জনতার উদ্দেশে। তার সমর্থকরা মনে করছেন, গত দুই দশক ধরে এরদোয়ান পার্লামেন্টের পরিবর্তে নিজের হাতে ক্ষমতা কুক্ষিগত করেছেন এবং সেই ক্ষমতা কেড়ে নেওয়ার জন্য এবারই সবচেয়ে বড় সুযোগ উপস্থিত।

জনমত জরিপগুলোতে দেখা যায়, সামান্য ব্যবধানে হলেও তাতে এগিয়ে আছেন কিলিচদারগলুই। তার সমর্থকরা এখন এ স্বপ্ন দেখার সাহস করছেন যে তিনি হয়তো ৫০ শতাংশের বেশি ভোট পেয়ে সরাসরি নির্বাচিত হবেন, দ্বিতীয় দফা ভোটাভুটির আর দরকার হবে না।

প্রেসিডেন্ট এরদোয়ানকে টিভি সাংবাদিকরা প্রশ্ন করেছিলেন, হেরে গেলে তিনি কী করবেন? জবাবে এরদোয়ান বললেন, ‘এটা একটা অর্থহীন প্রশ্ন, কিন্তু তার সরকার গণতান্ত্রিকভাবেই ক্ষমতায় এসেছে। আমাদের দেশ যদি মত পরিবর্তন করে, তাহলে আমরা ঠিক তাই করব যা গণতন্ত্রের জন্য প্রয়োজন।’

এবারের নির্বাচনে প্রথমবারের মতো ভোট দেবেন ৫০ লাখ নতুন ভোটার। তাদের একজন হলেন ফিরাত। তিনি বলছেন, এটা দেখে তিনি খুবই খুশি যে মধ্যবাম রিপাবলিকান পিপলস পার্টির প্রধানের সঙ্গে একই মঞ্চে এবার রক্ষণশীল এবং জাতীয়তাবাদীদের দেখা যাচ্ছে।

এখানে ছিলেন জাতীয়তাবাদী এবং ছয়দলীয় জোটের একমাত্র নারী নেত্রী মেরাল আকসেনার, আরো ছিলেন ইসলামপন্থী ফেলিসিটি পার্টির নেতা তেমেল কারামোল্লাওলু।

কিলিচদারগলুর দল মূলত ধর্মনিরপেক্ষ, কিন্তু তিনি হিজাব পরেন এমন নারীদের কাছে তার বার্তা পৌঁছে দিতে অনেক পরিশ্রম করেছেন।

ভোটের আগে উত্তেজনা এতটাই বৃদ্ধি পেয়েছে যে আংকারায় তার শেষ দুটি সমাবেশে কিলিচদারগলু বুলেটপ্রুফ পোশাক পরে মঞ্চে ওঠেন। এ ভোটযুদ্ধ হয়ে উঠেছে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ। প্রেসিডেন্ট পদের জন্য চারজন প্রার্থীর একজন মুহাররেম ইন্স বৃহস্পতিবার ভোট থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন। তার অভিযোগ, সামাজিক মাধ্যমে তাকে লক্ষ্য করে ভুয়া যৌন ভিডিও ছেড়ে ভোটারদের প্রভাবিত করা হচ্ছে।

বিরোধীরা এসব ভিডিওর জন্য রাশিয়াকে দায়ী করলে ক্রেমলিন থেকে এক বিবৃতি দিয়ে অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করা হয়। অন্যদিকে এরদোয়ান, যিনি ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে সম্পর্ক বজায় রেখেছেন, তিনি সতর্ক করে দিয়েছেন, ‘পুতিনকে আক্রমণ করলে তা তিনি ভালোভাবে নেবেন না।’

এরদোয়ানের সমাবেশগুলোতে নীল, কমলা ও সাদা রঙের একে পার্টির পতাকা নিয়ে বহু লোক আসেন। এসব সমাবেশে আগতরা একে পার্টিকে পুরোপুরি সমর্থন করেন বলেই মনে হয়। সবুজ জ্যাকেট পরে মঞ্চে ওঠা এরদোয়ান তার বক্তৃতায় বলেন, ‘আমরা স্কুল, বিশ্ববিদ্যালয় এবং হাসপাতাল বানিয়েছি। শহরগুলোর চেহারা বদলে দিয়েছি, আমাদের নিজস্ব তেল ও গ্যাস আহরণ করেছি।’

প্রথমে প্রধানমন্ত্রী এবং পরে প্রেসিডেন্ট হিসেবে এরদোয়ানের কৌশল ছিল এটাই—বড় বড় নির্মাণ প্রকল্প এবং প্রবৃদ্ধি অর্জন। বড় শহরগুলোতে তার চিহ্ন দেখা যায়, যদিও সিনক্যানের মতো ছোট শহরে ততটা নয়।

এরদোয়ানের একে পার্টির পক্ষে এখনো জোরালো সমর্থন আছে, তবে তিনি জাতীয়তাবাদী এমএইচপি এবং তার পিপলস এলায়েন্সের ছোট ছোট দলগুলোর সমর্থনের ওপরও নির্ভরশীল। তার সমর্থনের সব বড় উৎস হচ্ছে রক্ষণশীল বা জাতীয় তুর্করা। তা ছাড়া এরদোয়ান তার বক্তৃতায় পশ্চিমা বিশ্ব এবং এলজিবিটি, অর্থাৎ পুরুষ ও নারী সমকামী এবং ট্রান্সজেন্ডারদের বিরুদ্ধেও আক্রমণ শাণিয়ে থাকেন।
এই বিভাগের আরও খবর
চীনের উপর নির্ভরশীলতা কমিয়ে এখন রাশিয়ার দিকে ঝুঁকছে মিয়ানমার

চীনের উপর নির্ভরশীলতা কমিয়ে এখন রাশিয়ার দিকে ঝুঁকছে মিয়ানমার

মানবজমিন
পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ

পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ

যুগান্তর
রমজানে আল-আকসায় নামাজ পড়তে দিতে ইসরায়েলকে আহ্বান যুক্তরাষ্ট্রের

রমজানে আল-আকসায় নামাজ পড়তে দিতে ইসরায়েলকে আহ্বান যুক্তরাষ্ট্রের

যুগান্তর
প্রেসিডেন্ট ক্ষমা করলেও তা গ্রহণ করবেন না ইমরান খান

প্রেসিডেন্ট ক্ষমা করলেও তা গ্রহণ করবেন না ইমরান খান

মানবজমিন
রাখাইন রাজ্যে আরাকান আর্মির হাতে ৮০ জান্তা সেনা নিহত

রাখাইন রাজ্যে আরাকান আর্মির হাতে ৮০ জান্তা সেনা নিহত

বণিক বার্তা
এশিয়া-প্যাসিফিকের ভূমিকা জোরালো করবে চীন-রাশিয়া জোট 

এশিয়া-প্যাসিফিকের ভূমিকা জোরালো করবে চীন-রাশিয়া জোট 

নয়া দিগন্ত
ট্রেন্ডিং
  • ভালোবাসা দিবসে পরী মনির ‘বুকিং’

  • নির্বাচনের আগে পাকিস্তানে জোড়া বিস্ফোরণে নিহত ২৮

  • ভিসা পদ্ধতি পুরোপুরি তুলে নিলো যে দেশ

  • শন্তিপূর্ণভাবে মানুষ যাতে ভোট দিতে পারে সে ব্যবস্থা করেছি: প্রধানমন্ত্রী

  • ২০৩৫ সালের মধ্যে চীনের পারমাণবিক অস্ত্র বাড়বে তিন গুণ

  • তানজানিয়ায় প্লেন দুর্ঘটনায় নিহত ১৯

  • ব্যাংকে ৫ কোটি টাকার বেশি থাকলে বেশি কর

  • কাতার বিশ্বকাপে ফিরছে জিদানের সেই ভাস্কর্য

  • ইন্দোনেশিয়ার নিষেধাজ্ঞায় তেলের মূল্য আকাশছোঁয়া

  • অবিশ্বাস্য কীর্তিতে হাজার রানের ক্লাবে এনামুল বিজয়