মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা বাড়িয়ে ২০ হাজার টাকা করা হবে: প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ ঘোষণা করেছেন, বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ন্যূনতম মাসিক ভাতা ১২ হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে ২০ হাজার টাকা করা হবে।

ম্যানেজমেন্ট ইনফরমেশন সিস্টেম (এমআইএস) ব্যবহার করে প্রতি মাসে বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে ইলেকট্রনিক ফান্ড ট্রান্সফার সিস্টেমের মাধ্যমে ১ ৬৮,০০০ বীর মুক্তিযোদ্ধা ও তাদের পরিবারকে ভাতা হস্তান্তরের উদ্বোধন কালে প্রধানমন্ত্রী এ ঘোষণা দেন।

অনুষ্ঠানটি ওসমানী মেমোরিয়াল অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়। শেখ হাসিনা তার সরকারি বাসভবন গনো ভবন থেকে এই কর্মসূচিতে যোগ দেন।

"এখন আমার মনে হয়, ১২,০০০ টাকা অপর্যাপ্ত। মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকার নিচে অনেক স্লট আছে। আমরা তালিকার নিচের স্লটগুলো এক জায়গায় নিয়ে এসে ২০,০০০ টাকা বাড়াবো," তিনি বলেন।

জাতীয় বাজেটে এ জন্য অর্থ বরাদ্দ করতে সরকারের সময় প্রয়োজন, শেখ হাসিনা আরও বলেন, "কিন্তু, আমরা অবশ্যই তা করব।"

বর্তমানে শহীদ যুদ্ধবীরদের পরিবার প্রতি মাসে ৩০,০০০ টাকা এবং যুদ্ধে আহত দের পরিবার ২৫,০০০ টাকা পাচ্ছে।

মুক্তিযুদ্ধে সর্বোচ্চ বীরত্ব পুরস্কার বিজয়ী বীর শ্রেষ্টার পরিবার ৩৫,০০০ টাকা এবং বীর উত্তমের ২৫,০০০ টাকা পাচ্ছে।

বীর বিক্রম ও বীর প্রতীক পুরস্কার বিজয়ীরা যথাক্রমে ২০,০০০ টাকা এবং ১৫,০০০ টাকা পাচ্ছেন এবং বাকি মুক্তিযোদ্ধারা সাম্মানিক হিসেবে প্রতি মাসে ১২,০০০ টাকা পাচ্ছেন।

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, "বীর শ্রেষ্ট এবং বীর উত্তম ছাড়া, মুক্তিযুদ্ধে সবাই অংশগ্রহণ করেছিল বলে নিচের তিনটি স্লট কে এক জায়গায় আনা ভাল।

দেশের বীর যোদ্ধাদের কল্যাণে সরকারের বিভিন্ন কর্মসূচি সংক্ষেপে ব্যাখ্যা করে হাসিনা বলেন, সরকার গৃহহীন ও দরিদ্র মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য বাড়ি সরবরাহ করছে।

তিনি বলেন, "যতদিন আমি সরকারে থাকব, এটা কখনোই ঘটবে না যে মুক্তিযোদ্ধাদের কোন বাড়ি এবং ঠিকানা নেই, এবং তারা তাদের দিনগুলো দুর্দশার মধ্যে কাটাচ্ছে।"

প্রধানমন্ত্রী আরও উল্লেখ করেন যে সরকার জীবিকা সম্পন্ন সবার জন্য একটি বাসযোগ্য স্থান প্রদান করবে। "আমরা সাহসী মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি শ্রদ্ধা প্রদর্শনের জন্য সরকারের প্রতিটি পদক্ষেপ গ্রহণ করছি।"

তিনি আরো বলেন, মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি সংরক্ষণে সরকার বিভিন্ন ধরনের প্রকল্প গ্রহণ করেছে। "সরকার প্রতিটি গণ কবরস্থান সংরক্ষণের পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে যা পাকিস্তানী দখলদার বাহিনী এবং তাদের মিত্র এবং সঙ্গীদের দ্বারা সংঘটিত নৃশংসতার চিহ্ন বহন করে।

হাসিনা বলেন, সরকার প্রতিটি উপজেলায় মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স নির্মাণ করছে যেখানে মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কিত উপকরণ সংরক্ষণের জন্য একটি ছোট জাদুঘর নির্মাণ করা হবে।

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী এ কে এম মোজাম্মেল হক ও সম্পাদক তপন কান্তি ঘোষ ও সম্পাদক তপন কান্তি ঘোষ ওই অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।

ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী কালিয়াকুর (গাজীপুর), ফুলবাড়ি (কুড়িগ্রাম), পাইকগাছা (খুলনা), হাইমচর (চাঁদপুর) ও বোরোলেখা (মৌলভীবাজার) বিভিন্ন সুবিধাভোগীদের সাথে কথা বলেন।

এই বিভাগের আরও খবর
‘লকডাউন’ বাড়বে কিনা, জানা যাবে আজ

‘লকডাউন’ বাড়বে কিনা, জানা যাবে আজ

যুগান্তর
‘শিশু বক্তা’ রফিকুল ইসলাম মাদানী ফের আটক

‘শিশু বক্তা’ রফিকুল ইসলাম মাদানী ফের আটক

বাংলা ট্রিবিউন
অন্যান্য পরিবহনের তুলনায় নৌপথ পরিবেশবান্ধব ॥ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

অন্যান্য পরিবহনের তুলনায় নৌপথ পরিবেশবান্ধব ॥ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

জনকণ্ঠ
শর্ত ভেঙে দূরপাল্লার বাস ঢুকছে ঢাকায়

শর্ত ভেঙে দূরপাল্লার বাস ঢুকছে ঢাকায়

বণিক বার্তা
দু’দিন বন্ধ থাকার পর ফের গণপরিবহন চলাচল শুরু

দু’দিন বন্ধ থাকার পর ফের গণপরিবহন চলাচল শুরু

জনকণ্ঠ
মামুনুলকে নিয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে গ্রেফতার সেই যুবলীগ নেতার জামিন

মামুনুলকে নিয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে গ্রেফতার সেই যুবলীগ নেতার জামিন

যুগান্তর
ট্রেন্ডিং
  • তিন মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ করোনায় মৃত্যু

  • ২৯ মার্চের পরিবর্তে ৩০ মার্চ শাব-ই-বারাতের ছুটি

  • করোনায় আরো ২২ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২১৭২

  • বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার ৬ সমঝোতা স্মারক সই

  • করোনায় আরো ১৮ জনের মৃত্যু, নতুন সনাক্ত ১১৫৯ জন

  • সিলেট -৩ সাংসদ মাহমুদ সামাদ চৌধুরী কোভিড -১৯ এ মারা গেছেন

  • কোভিড -১৯: দৈনিক সংক্রমণের সংখ্যা বাড়ছে

  • ভারত, বাংলাদেশের সংযোগকারী 'মৈত্রী সেতু' উদ্বোধন করলেন মোদী

  • আজ নারী দিবস

  • উপসচিব পদে ৩৩৭ জন কর্মকর্তার পদোন্নতি